জাতীয় এ্যাথলেটিকস এর পর্দা নামলো আজ, ৩দিনে ৪ টি রেকর্ড, ৩য় দিনে ২০০মিঃ ইভেন্টে নৌবাহিনীর সোহাগী আক্তারের (২৫.০৬ সে.(ই) টাইমিং এ নতুন জাতীয় রেকর্ড, বাংলাদেশ সেনাবাহিনী চ্যাম্পিয়ন

বাংলাদেশ এ্যাথলেটিকস ফেডারেশন আয়োজিত ওয়ালটন ৪২তম জাতীয় এ্যাথলেটিকস প্রতিযোগিতা-২০১৮ইং ২৪-২৬ জানুয়ারী, ২০১৯ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম, ঢাকায় অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত প্রতিযোগিতার পর্দা নামলো আজ (26/01/19) সন্ধ্যা ৭টায়। ৩দিন ব্যাপী প্রতিযোগিতায় ৪টি নতুন জাতীয় রেকর্ড এর মধ্যেই ৩টিই বাংলাদেশ নৌবাহিনীর অর্জন ১০০মিটার (পুরুষ) , শটপুট (পুরুষ) ও ২০০মিঃ (মহিলা) ১টি বিকেএসপির ৪০০মিটার ইভেন্টে। ২০০ মিটারে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর সোহাগী আক্তারের (২৫.০৬ সে.(ই) নতুন জাতীয় রেকর্ড পূর্বের রেকর্ড ছিল জাকিয়া সুলতানার ২০১৩ সালে।

তিনদিন ব্যাপী প্রতিযোগিতায় ৩৬টি ইভেন্টের জন্য ৫০টি দলের ৪২২জন এ্যাথলেট অংশগ্রহন করেছেন এর মধ্যে পুরুষ এ্যাথলেট ৩১৯জন মহিলা এ্যাথলেট ১০৩ জন। প্রতিযোগিতা পরিচালনার জন্য দেশের বরেণ্য ক্রীড়া সংগঠক, সাবেক জাতীয় খেলোয়াড়, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক মানের পুরস্কারপ্রাপ্ত বহু সংখ্যক প্রায় ১৫০জন ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব উপস্থিত ছিলেন যারা জাজ/বিচারক হিসেবে কাজ করেছেন।

৩৬টি ইভেন্টেই প্রতিযোগিতা সম্পন্ন হয়েছে । ১৬ টি স্বর্ণ, ১৩ টি রৌপ্য এবং ১৭ টি ব্রোঞ্জ সহ মোট ৪৬টি পদক নিয়ে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পদক তালিকার শীর্ষে অবস্থান করছে। ১৫ টি স্বর্ণ, ২১ টি রৌপ্য এবং ০৯ টি ব্রোঞ্জ সহ মোট ৪৫ টি পদক নিয়ে ২য় অবস্থানে আছে বাংলাদেশ নৌবাহিনী এবং ০২ টি স্বর্ণ ,০১ টি রৌপ্য এবং ৪ টি ব্রোঞ্জ সহ মোট ৭ টি পদক নিয়ে ৩য় অবস্থানে আছেন বাংলাদেশ জেল। তিনদিন ব্যাপি এই প্রতিযোগিতার সকল ইভেন্টের রেজাল্ট সংযুক্ত করা হলো।

সেরা এ্যাথলেট (পুরুষ) মোঃ জহির রায়হান, বিকেএসপি ১টি রেকর্ডসহ ২টি স্বর্ণ পদক। সেরা এ্যাথলেট (মহিলা) সুমী আক্তার,বাংলাদেশ সেনাবাহিনী,ব্যক্তিগত ৪টি স্বর্ণ পদক। সেরা এ্যাথলেটদের পুরষ্কার- বাংলাদেশ জেলের পক্ষ থেকে ১০,০০০/- হাজার টাকা করে প্রদান, বাংলাদেশ এ্যাথলেট এসোসিয়েশন ও ওয়ালটন গ্রুপের পক্ষ থেকে বিশেষ পুরষ্কার।

চারজন রেকর্ডধারী ও সেরা এ্যাথলেটদের ফেডারেশনের পক্ষ থেকে ৫,০০০/- টাকা করে পুরষ্কার, আলহাজ্ব মোঃ বশির আলী ফাউন্ডেশন, সিলেট এর পক্ষ থেকে ১০,০০০/- হাজার টাকা করে পুরষ্কার এবং নৌ ক্রীড়া নিয়ন্ত্রণ বোর্ডের সচিব লেঃ কমান্ডার এস এম সাউদ হোসেনের পক্ষ থেকে ১০,০০০/- হাজার টাকা করে পুরষ্কার।

সেরা জাজ- জনাব মোঃ আঃ খালেক ও মিসেস মাহবুবা ইকবাল বেলী উভয়কেই বাংলাদেশ জাজেস এসোসিয়েশন থেকে সম্মাননা পুরষ্কার দেওয়া হয়।

৩দিন ব্যাপি এই প্রতিযোগিতাকে সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে সাফল্য মন্ডিত করে সমাপ্তি করার জন্য ফেডারেশনের কার্যনির্বাহী কমিটির সকল কর্মকর্তা, রাষ্টীয় পুরষ্কার প্রাপ্ত ও সাবেক জাতীয় ক্রীড়াবিদ, অফিসিয়াল, জাজ, আম্পায়ার, অংশগ্রহনকারী সকল জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা, শিক্ষা বোর্ড, টিম ম্যানেজার, এ্যাথলেটসহ সংশ্লিষ্ট সকল কে বাংলাদেশ এ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করা হলো।